SEO Friendly article tips আর্টিকেল লিখার টিপস

article-tips

article-tips ভালো মানের এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখার গুরুত্বঃ

article-tips – আপনার টার্গেট হচ্ছে আপনার ব্লগকে গুগলের প্রথম পৃষ্ঠায় নিয়ে আসা । আপনার ব্লগে যদি মান সম্পূর্ণ ভালোমানের এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল থাকে তাহলে আপনি গুগলের পিছনে ছুটতে হবে না ,গুগলই আপনার পিছনে ছুটবে ।গুগল আপনাকে অটোমেটিকালি রেঙ্ক দিবে । আর প্রথম পৃষ্ঠায় আসতে পারলেই আপনার ভিজিটরের অভাব হবে না ।ওয়েব স্পেশালিষ্টরা একটা কথা ভালো করেই জানেন যে ” ভিজিটর =টাকা “। কথাটা আসলেই চিরন্তন সত্য । ভিজিটর নাই আপনার সাইটের মূল্য ও নাই । ভিজিটর বেশি হলে বেশি ইনকাম করা যাবে ।গুগলের সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী গুগল ভালো মানের আর্টিকেলকে বেশি গুরুত্ত দিচ্ছে । তাই আপনাকে ভালো মানের এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল অবশ্যই লিখতে হবে । এই জন্য আমার এসইও টিপস গুলো অনুসরণ করেন আশা করি অনেক ভালো কাজ দিবে

mypayingads bangla tutorial

ভালো মানের ও SEO Friendly article (আর্টিকেল )লিখার টিপসঃ

১। সব সময় আর্টিকেল বড় করতে চেষ্টা করবেন । গুগল চায় তার ইউজারকে এমন পোস্ট দেখাতে যেসব পোস্ট তথ্যবহুল তাই সবসময় তথ্যবহুল পোস্ট লিখুন । আদর্শ হচ্ছে
৩০০-১৫০০ শব্দের মধ্যে আর্টিকেল লিখলে ।
২। টাইটেল এ আপনার প্রধান কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করুন । ভিজিটররা সবার আগে টাইটেল দেখে,টাইটেল কে আকর্ষণীয় করতে হবে।যেমনঃ ১। “অনলাইনে আয় করার ২ টি বই
ডাউনলোড করুন” ২। “আপনি কি আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তিত?ডাউনলোড করে নিন অনলাইনে আয় সংক্রান্ত অসাধারন একটি ই-বুক” প্রিয় বন্ধুরা তোমরা নিশ্চয় ২ টা
বাক্যই পড়েছো কিছু কি বুঝতে পারছো ? হ্যা,অবশ্যই বুঝতে পেরেছো ২য় টি শ্রুতি মধুর ,আকর্ষণীয় কিন্তু অন্যটি এত আকর্ষণীয় না ।
৩। আর্টিকেলে কী-ওয়ার্ড এর ঘনত্ব ২-৩ % রাখতে চেষ্টা করবেন । অর্থাৎ আপনি যদি ১০০ শব্দ লিখেন তাহলে আপনাকে কী-ওয়ার্ড রাখতে হবে ২ টি বা ৩ টি । অতিরিক্ত কী-
ওয়ার্ড ব্যবহার করাকে কী-ওয়ার্ড স্টাফিং বল । যাকে সার্চইঙ্গিন ওভার অপ্টিমাইজড বলে। এই ধরনের আর্টিকেলকে সার্চইঙ্গিন পুরাপুরি ইগ্নোর করে । এই ধরণের আর্টিকেল SEO Friendly article নয় তাই এই ধরনের আরটিকেল লিখা থেকে বিরত থাকুন ।
Read: Guest Posting এর জন্য নিয়ে নিন Uk এর সেরা ১১৮ টি Blog সাইটের লিস্ট
৪। h1,h2 হেডিং ব্যবহার করবেন ।যেমনঃ আমরা যখন পত্রিকা পড়ি তখন পত্রিকার সবটা পড়িনা । আমরা জাস্ট শিরোনামটা পড়ি তবে কিছু ক্ষেত্রে ফুল লেখাটা পড়ি ।তাই
h1,h2,h3,h4,h5,h6 হেডিং অবশ্যই ব্যবহার করবেন । সার্চ ইঙ্গিন এইগুলাকে টাইটেল হিসেবে দেখে।তবে সাবধান!!! h1,h2,h3,h4,h5,h6 কখনো ১ বারের বেশি ২ বার লিখা
যাবে না,তাহলে গুগল কিন্তু আপনাকে দারুণ একটা গিফট করবে জানেন গিফট টা কি ? ধারুণ একটা পেনাল্টি ।
৫। আপনার আর্টিকেল যেসব জায়গায় কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করেছেন সেসব কী-ওয়ার্ডকে বোল্ড,ইতালিক,আন্ডারলাইন করুন ।
৬। আপনার লেখার সাইজ ১৫ তে রাখবেন ,যাতে ইউজার ফ্রেন্ডলি হয় । সব সময় সার্চ ইঙ্গিন ফ্রেন্ডলি না করে হিউমেন ফ্রেন্ডলি
করবেন তাহলে অটোমেটিক সার্চ ইঙ্গিন ফ্রেন্ডলি হয়ে যাবে ।
৭ । গুরুত্ত পূর্ণ জায়গায় ইমাজ লাগাবেন এবং অবশই অল্টার ট্যাগ ব্যবহার করবেন alt=”your alt text”
৮। কিছু লিখাকে strong,underline,bold করবেন ।
৯। পোস্টের শেষে আপনার লেখাটা শেয়ার করতে বলবেন । কারণ সোশ্যাল মিডিয়াতে যেসব পোস্টের শেয়ার বা লাইক বেশি গুগলের
কাছে তার গুরুত্ত ও বেশি । তাই সবসময় ভিজিটরদের শেয়ার করার জন্য আহবান জানাবেন ।
১০। পরিশেষে আপনি এমন পোস্ট করবেন যেটা মানুষের প্রয়োজনীয় ।

seo-friendly-articles-writing-titles-example-tricks-tips seo friendly Articles article writing example titles,first page rank ranking

কী-ওয়ার্ড এর সঠিক ব্যবহারঃ

কী-ওয়ার্ড খুবই গুরুত্তপূর্ণ জিনিস । কী-ওয়ার্ড ছাড়া এস.ই.ও এর কথা ভাবাই যায় না । আমাদেরকে কী-ওয়ার্ড এর সঠিক ব্যবহার জানতে হবে । সবসময় মেইন কী-ওয়ার্ডকে টাইটেলে রাখতে হবে । আরেকটা বিষয় হলো আপনি কি নিয়ে পোস্ট করতেছেন,সে বিষয়টা কিভাবে সার্চ হতে পারে তা চিন্তা করে ৪-৫ টা লাইন মেটা ডেস্ক্রিপ্সান হিসেবে যোগ করে দিন এবং মেটা ডেস্ক্রিপসানে অবশ্যই কী-ওয়ার্ড দিবেন । h1,h2,h3,h4,h5,h6 ট্যাগ গুলোতে অবশ্যই কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করবেন । ইমেজের অল্টারে কী-ওয়ার্ড রাখবেন ।
কী-ওয়ার্ড গুলোকে বোল্ড ,আন্ডারলাইন,ইতালিক করবেন।প্রথম প্যারায় ও শেষের প্যারায় কী-ওয়ার্ড রাখবেন

Note : অন্যের লিখা কপি করে নিজের নামে চালিয়ে দিলেন আর আপনি ব্লগার হয়ে গেলেন,আরে ভাই সফলতা পাওয়া এতো সহজ না।

সূত্র: মুক্ত আইটি.কম

লেখক: মো: আব্দুল্লাহ- ফাউন্ডার (মুক্ত আইটি.কম)

552 Views

*

*

Top