12 years test played after face to face Australia! ১২ বছর টেস্ট খেলার পর অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি!

12 years test played after face to face Australia! আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১২ বছর কাটিয়ে দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। এক যুগে খেলা ৫৪ টেস্টে জয়ের স্বাদ পেয়েছেন আটটিতে। এই আটটি জয়ের ছয়টিই আবার গত তিন বছরে। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের উন্নতির লেখচিত্রের সঙ্গে টেস্টের গ্রাফটাও ঊর্ধ্বমুখী। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে নতুন এক অভিজ্ঞতা হতে যাচ্ছে মুশফিকের। অবশ্য শুধু তিনি নন, বর্তমান দলের সবারই একই অভিজ্ঞতা হতে যাচ্ছে—অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলা।

মুশফিক বললেন, ‘সবার সঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতা হয়েছে, অস্ট্রেলিয়া বাদ ছিল। শুধু আমার জন্য নয়, আমাদের দলের জন্য বড় সুযোগ। সবাই রোমাঞ্চিত। তবে সবাই জানে কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে সামনে। অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সিরিজটা ভালোভাবে শেষ করতে পারলে ওই আক্ষেপ আর থাকবে না। পরে আবার কবে সুযোগ হবে, সেটা তো বলা যায় না। ১২ বছরে টেস্টে অনেক কিছু শিখেছি। চেষ্টা করব অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ফলটা আমাদের পক্ষে আনতে।’
গত অক্টোবরে দেশের মাঠে ইংল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ ব্যবধানে সিরিজ ড্রয়ের পর মার্চে শ্রীলঙ্কার মাটিতে শ্রীলঙ্কানদের বিপক্ষে সিরিজে ১-১ সমতা। ক্রিকেটের বড় দৈর্ঘ্যে বাংলাদেশের ক্রম উন্নতির কিছু কারণ খুঁজে পেয়েছেন মুশফিক, ‘একটা দলের খেলোয়াড় যখন বিশ্বমানের হয়, তামিম-সাকিবদের যদি দেখেন, তাদের দেখে অনেক শেখার আছে। তারা ভালো খেললে তরুণেরা উৎসাহিত হয়। তরুণদের মধ্যে বিশ্বাস আসে, বড় ভাইয়েরা ভালো খেললে আমরা কেন নয়। আমাদের বিশ্বাস এসেছে, ভালো খেললে যেকোনো দলকে হারাতে পারি। শুধু স্বপ্ন দেখলে হয় না, সামর্থ্য এবং সেই মানের খেলোয়াড়ও থাকতে হয়। আমাদের এখন সেটা আছে।’
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুর্দান্ত কিছু করতে গত ১০ জুলাই থেকেই প্রস্তুতি শুরু করেছে বাংলাদেশ। এখন চলছে সেটির চট্টগ্রাম-পর্ব। টেস্টের জন্য দীর্ঘ প্রস্তুতি, ১২ বছরের ক্যারিয়ারে এটিও মুশফিকের জন্য নতুন, ‘গত ১২ বছরে এমন প্রস্তুতি এই প্রথম। প্রায় দুই মাস সময় পাচ্ছি টেস্টের জন্য তৈরি হতে। চেষ্টা করব এটা (প্রস্তুতি) পুরোপুরি কাজে লাগাতে।’

151 Views

*

*

Top